বাংলাদেশ, শুক্রবার, ১০ জুলাই ২০২০ ২৬শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

সবার সহযোগীতায় ৫নং মোহরা ওয়ার্ডকে মডেল ওয়ার্ডে পরিণত করাই মূল লক্ষ্য- কাজী নুরুল আমিন মামুন


প্রকাশের সময় :25 February, 2020 1:41 : PM

এম.এইচ মুরাদ:

আসন্ন চসিক নির্বাচনে ৫নং মোহরা ওয়ার্ড থেকে আওয়ামীলীগের মনোনীত প্রার্থী হিসাবে মনোনয়ন পেয়েছেন কাজী নুরুল আমিন মামুন। তিনি মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক ছিলেন।

সাবেক ছাত্রলীগ নেতা মোহাম্মদ কাজী নুরুল আমিন মামুন বলেছেন, আমি একজন তরুণ হিসেবে এলাকার উন্নয়নে কাজ করতে চাই। আপনাদের দোয়া এবং আশির্বাদে আমি যদি কাউন্সিলর নির্বাচিত হই তাহলে ৫ নং মোহরা ওয়ার্ডকে আধুনিক ও মডেল ওয়ার্ড হিসেবে গড়ে তুলতে যা যা করা প্রয়োজন তা সবই করব। সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় আমি সবসময় এলাকার মানুষের কল্যানে কাজ করতে চাই। আমি যদি কাউন্সিলর নির্বাচিত হই তাহলে আমার প্রথম কাজ হবে সব দলের মানুষকে সঙ্গে নিয়ে এলাকার সমস্যাগুলো চিহ্নিত করে তা সমাধান করা।

সংসদীয় আসন চট্টগ্রাম-৮ (বোয়ালখালী-আংশিক চান্দঁগাও) আসনে নৌকার মাঝি মোসলেম উদ্দিন এর পক্ষে প্রচারণার সময়

মোহরা ওয়ার্ডের সব ধরনের নাগরিক সেবা নিশ্চিতের পাশাপাশি এলাকার অবহেলিত শিক্ষিত যুব সমাজকে সংগঠিত করে তাদের উন্নয়নের কাজে করবো। নবীন এবং প্রবীনের সমন্বয়ে এলাকার উন্নয়নে কাজ করতে চাই। যে কোন অন্যায়ের প্রতিবাদে এবং বিপদে আপদে আমার এলাকার জনগণ যেকোন মূহুত্বে আমাকে কাছে পাবে এই আশ্বাস এবং বিশ্বাস আমার উপর রাখতে পারবেন এলাকার ছোট বড় সবাই । একান্ত আলাপচারিতায় একাত্তর বাংলা নিউজকে তিনি এ কথা বলেন।

এক প্রশ্নের জবাবে কাজী মামুন বলেন, আমি মনে করি বাংলাদেশ আজ উন্নয়নের রোল মডেল। আমি আমাদের দলীয় প্রধান ও গনমানুষের প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার গৃহীত উন্নয়ন কার্যক্রমকে সাধারন মানুষের দ্বারপ্রান্তে পৌছে দেয়ার জন্য কাজ করছি। আমি প্রত্যেকটি মানুষের কাছে প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নের বার্তা নিয়ে যাচ্ছি।

দেশের বর্তমান উন্নয়ন চিত্র তাদেরকে আবারও মনে করে দেয়ার ক্ষুদ্র চেষ্টা করছি। দেশের মানুষ তথা আমার নির্বাচনী এলাকা ৫ নং মোহরা ওয়ার্ডের জনগন ভালো করেই সে উন্নয়নের সুফল ভোগ করলেও তাদের কাছে আবারও অনুরোধ করছি এ উন্নয়নের অগ্রযাত্রাকে অব্যাহত রাখতে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পুনরায় নৌকা প্রতীকে ভোট দিয়ে বর্তমান আওয়ামীলীগ সরকারকে দেশ সেবার সুযোগ করে দেয়ার জন্য। এবং আসন্ন চসিক নির্বাচনে আওয়ামীলীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থীকে জয়ী করার মাধ্যমে উন্নয়নের যাত্রা অব্যাহত রাখতে।

কাজী মামুন আরো বলেন, আমার নির্বাচনী এলাকা ৫নং মোহরা ওয়ার্ডের আওয়ামীলীগের সকল নেতা কর্মীই খুবই আদর্শিক, আন্তরিক ও সহানুভূতিশীল। তাই যে কোন দলের বিরুদ্ধে প্রতিদ্বন্দিতা করার যোগ্যতা আমাদের আছে ইনশাআল্লাহ। যারা প্রতিনিয়ত মানুষের দ্বারে দ্বারে নৌকার উন্নয়ন বার্তা পৌছে দিচ্ছে তাদের আমি আন্তরিক সাধুবাদ এবং ধন্যবাদ জানাই।

তিনি বলেন, এলাকার নারী উন্নয়ন, বাল্যবিবাহ রোধ, মাদক প্রতিরোধে এলাকার সকল নেতাকর্মীদের নিয়ে কাজ করতে চাই। প্রত্যেকটি এলাকায় কমিউনিটি পুলিশিং চালু করতে চাই। এলাকা থেকে মাদক নির্মূল করতে চাই। এলাকার সু-সেনিটেশন নিশ্চিত করতে চাই। এলাকার গ্যাস, বিদ্যুৎ, পানির যে সমস্যা তা দুর করতে চাই। প্রত্যেকটি মসজিদ মন্দিরে সরকারী অনুদানে উন্নয়ন ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে চাই।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার দিক নির্দেশনায় ও বাস্তবমূখী পদক্ষেপের কারনে দেশ আজ উন্নয়নশীল দেশ। এ দেশ আমাদের সবার। আমাদের নিজ ভাগ্য উন্নয়ের তাগিদেই দেশের উন্নয়ন প্রয়োজন। সে জন্য সবাইকে কাজ করতে হবে। কোন কাজই ছোট নয়, কাজ কাজই। তাই সবাইকে আমি অনুরোধ করবো নিজের উন্নয়নে, দেশের উন্নয়নে আসুন সবাই যার যার যোগ্যতা ও সামর্থ্য অনুযায়ী কাজ করি।

তিনি আরো বলেন, মানুষ উন্নয়ন চায়, নিজের ভাগ্য পরিবর্তন চায়, দেশের মানুষ আজ শিক্ষায় শিক্ষিত হচ্ছে। দেশের রাস্তা-ঘাটের উন্নয়ন, নতুন নতুন সেতু নির্মান, কলকারখানা নির্মান হচ্ছে মানুষ কাজ করছে। দেশের সকল সেবা খাতের উন্নতি হয়েছে। মানুষ আজ হাতের কাছেই তার সকল সেবা পাচ্ছে। আমরা আজ মহাকাশেও নিজেদের অবস্থান করতে পেরেছি। মেট্রোরেল, পদ্মা সেতু আজ বাস্তব বাংলাদেশ।

সর্বশেষে বলব, নবীন প্রবীনের সমন্বয়ে এলাকার উন্নয়নে কাজ করতে চাই। কারন আমি মনে করি প্রবীনের অভীজ্ঞতা আর নবীনের কর্মস্পৃহা দেশের যে কোন সমস্যা সমাধান করতে সক্ষম। আমি নৌকার তথা বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের একজন কর্মী। একজন কর্মী হয়ে আমার সকল কর্মীদের সাথে নিয়ে আগামী পথ চলতে চাই। যতদিন বেচে আছি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের আদর্শ বুকে লালন করে এবং জননেত্রী শেখ হাসিনার দিক নির্দেশনায় পথ চলতে চাই। মহান সৃষ্টিকর্তার করুনা এবং আপনাদের দোয়া ও ভালবাসা সাথে নিয়ে পথ চলতে চাই। আশা করি সবাই আমাকে আপনাদের সাথে রাখবেন।

ট্যাগ :