বাংলাদেশ, বৃহস্পতিবার, ২২ এপ্রিল ২০২১ ৯ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

শহীদ মিনারে এইচ টি ইমামকে শেষ শ্রদ্ধা


প্রকাশের সময় :৪ মার্চ, ২০২১ ৯:৩৮ : পূর্বাহ্ণ

স্টাফ রিপোর্টারঃ

প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা, স্বাধীন বাংলদেশের প্রথম মন্ত্রী পরিষদ সচিব, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা হোসেন তৌফিক (এইচ. টি ইমাম)’র মরদেহে রাষ্ট্রপতি এবং প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। তাদের নিবেদন শেষে সংগঠনের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ।

বৃহস্পতিবার (৪ মার্চ) দুপুর সাড়ে ১২টায় সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য তার মরদেহ শহীদ মিনারে নিয়ে আসা হয়।

পরে কফিনে প্রথমে রাষ্ট্রপতির পক্ষে তার সামরিক সচিব মেজর জেনারেল এস এম সালাহ উদ্দিন ইসলাম (বীর প্রতীক) ও প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে তার সামরিক সচিব মেজর জেনারেল নকিব আহমদ চৌধুরী পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করেন। তার মরদেহ সর্বসাধারণের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য বিকেল সাড়ে তিনটা পর্যন্ত শহীদ মিনারে রাখা হবে।

এরপর আওয়ামী লীগের পক্ষে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য মুকুল বোস, সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য জাহাঙ্গীর কবীর নানক, আব্দুর রহমান প্রমুখ। এরপর প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের পক্ষে প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব ড. আহমদ কায়কাউস শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

এ সময় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, এইচ টি ইমাম হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার আগ পর্যন্ত দেশের জন্য কাজ করে গেছেন। চাকরি থেকে অবসর নিয়েছিলেন, কিন্তু কাজ থেকে কখনও অবসর নেননি। এইচ টি ইমামের মৃত্যুতে যে শূন্যস্থান তৈরি হলো তা কখনও পূরণ হওয়ার নয়।

এইচ টি ইমামের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগ, যুবলীগ, কৃষকলীগ, মহিলা আওয়ামী লীগ, যুব মহিলা লীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, শ্রমিক লীগসহ সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিক ও ব্যক্তি পর্যায়ের মানুষ এবং বিভিন্ন সংগঠনের তরফ থেকে এইচ টি ইমামের কফিনে শেষ শ্রদ্ধা জানানো হয়।

এর আগে বৃহস্পতিবার (৪ মার্চ) দুপুর ১২টায় উল্লাপাড়া সরকারী আকবর আলী কলেজ মাঠে তার প্রথম জানাজা নামাজ অনুষ্ঠিত হয়।

এর আগে, সকাল সাড়ে ১০টায় উল্লাপাড়ার তার নিজ গ্রাম সোনতলা উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে হেলিকপ্টারযোগো তার মৃতদেহ আনা হয়।

উল্লাপাড়ায় জানাজা নামাজ শেষে দুপুরের দিকে হেলিকপ্টারযোগে ঢাকার উদ্দেশ্যে নিয়ে আসা হয়।

এইচ. টি ইমাম আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য। ২০০৯ সাল থেকে প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। ২০০৯ সালে জনপ্রশাসন-বিষয়ক উপদেষ্টা এবং ২০১৪ সাল থেকে আমৃত্যু প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা ছিলেন তিনি। আওয়ামী লীগের নির্বাচনী পরিচালনা কমিটির দুইবার কো-চেয়ারম্যান এবং প্রচার ও প্রকাশনা উপ-কমিটির চেয়ারম্যান হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন।

এইচ. টি ইমাম দীর্ঘদিন যাবত কিডনি জটিলতায় ভুগছিলেন। তিনি দুই সপ্তাহ আগে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে ভর্তি হন। বুধবার (৩ মার্চ) দিবাগত রাত ১টা ১৫ মিনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় এই কর্মবীর মারা যান।

ট্যাগ :