মোস্টবেট বাংলাদেশের সেরা বুকমেকার। স্পোর্টস বেটিং, অনলাইন ক্যাসিনো সকলের জন্য সীমাবদ্ধতা ছাড়াই উপলব্ধ, এবং একটি ব্যাঙ্ক কার্ডে Mostbet withdrawal সম্ভব!
Türkiye'nin en iyi bahis şirketi Mostbet'tir: https://mostbet.info.tr/

বাংলাদেশ, শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪ ৭ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মাস শেষে পেনশন স্কিমে যুক্ত ১৩ হাজার মানুষ


প্রকাশের সময় :১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২৩ ২:৩২ : অপরাহ্ণ

স্টাফ রিপোর্টার:

দেশের নাগরিকদের জন্য চালু হওয়া বহুল প্রতীক্ষিত সর্বজনীন পেনশন কর্মসূচি (স্কিম) এক মাস পেরিয়ে গেছে। গত ১৭ আগস্ট পেনশন স্কিম উদ্বোধন করা হয়েছিল।

সোমবার (১৭ সেপ্টেম্বর) পর্যন্ত কিস্তির টাকা জমা দিয়ে বিভিন্ন স্কিমে নিবন্ধন নিয়েছেন ১২ হাজার ৯৭০ জন। জাতীয় পেনশন কর্তৃপক্ষের সদস্য ও অর্থ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব গোলাম মোস্তফা ঢাকা পোস্টকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, এখন পর্যন্ত পেনশন স্কিমে যুক্ত হয়েছেন ১২ হাজার ৯৭০ জন। নিবন্ধন হিসাব করলে সংখ্যা অনেক বেশি হবে, তবে আমরা শুধু নিবন্ধনের হিসাব আমলে নিচ্ছি না। টাকা জমা দিয়ে আক্ষরিক অর্থে যারা যুক্ত হয়েছেন তাদের হিসাব নিচ্ছি।

পেনশন স্কিমে সাড়া তুলনামূলক কম কি না জানতে চাইলে গোলাম মোস্তফা ঢাকা পোস্টকে বলেন, এ ধরণের একটি প্রোগ্রামের জন্য এক মাস বেশি সময় না। যারা যুক্ত হয়েছেন তারা স্বতস্পূর্ত তাগিদে যুক্ত হয়েছেন। এ বিষয়ে আরও প্রচারণা দরকার আছে। আর একটি বিষয় হচ্ছে, মানুষ স্কিম করার আগে তার অর্থনৈতিক সক্ষমতাও হিসাব করছে। মানুষকে সময় দিতে হবে, আমরা আমাদের প্রচেষ্টা চালাচ্ছি। আমরা আশা করছি, ভবিষ্যতে এটা বাড়বে।

পেনশনের টাকা পাওয়া নিয়ে কোনো আস্থার সংকট রয়েছে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, আপনারা যদি সিস্টেমটা দেখেন, পেনশন স্কিম গ্রহণকারীকে এখনও যেমন কোথাও যেতে হয় না, ভবিষ্যতেও যেতে হবে না। আবেদনে তিনি একটি ব্যাংক অ্যাকাউন্ট দিয়ে দিচ্ছেন। তিনি যখন পেনশন পাবেন, তখন ইএফটি’র মাধ্যমে তার প্রাপ্য টাকা ব্যাংক অ্যাকাউন্টে যাবে। কোনো মানুষের সান্নিধ্যে যেহেতু আসা লাগছে না, তাই হয়রানির প্রশ্নই নেই। যখন স্কিম পূর্ণতা লাভ করবে, তখন অটো সিস্টেমে পেনশনের টাকা তার অ্যাকাউন্টে চলে যাবে।

প্রবাস স্কিম, প্রগতি স্কিম, সুরক্ষা স্কিম এবং সমতা স্কিম- এ চার স্কিম নিয়ে সর্বজনীন পেনশন স্কিম চালু করেছে সরকার। চালুর প্রথম দিনেই এতে ব্যাপক সাড়া দেখা যায়। পেনশন বিধিমালা বলছে, সর্বজনীন পেনশন প্রথায় যার যত টাকা জমা, মেয়াদ শেষে তার তত বেশি পেনশন। অন্যদিকে, স্বল্প আয়ের মানুষদেরও বিমুখ করবে না এ উদ্যোগ। যারা মাসিক ৫০০ টাকা জমাবেন, তাদের জন্য শুরু থেকেই থাকবে সরকারের আরও ৫০০ টাকার ভর্তুকি। সবমিলিয়ে, সবার জন্যই থাকছে নির্দিষ্ট মেয়াদ শেষে বাড়তি কয়েকগুণ মুনাফা।

ট্যাগ :