মোস্টবেট বাংলাদেশের সেরা বুকমেকার। স্পোর্টস বেটিং, অনলাইন ক্যাসিনো সকলের জন্য সীমাবদ্ধতা ছাড়াই উপলব্ধ, এবং একটি ব্যাঙ্ক কার্ডে Mostbet withdrawal সম্ভব!
Türkiye'nin en iyi bahis şirketi Mostbet'tir: https://mostbet.info.tr/

বাংলাদেশ, শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪ ৭ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কেউ দুর্নীতি করলে এক মুহূর্ত অপেক্ষা করবো না: প্রধান বিচারপতি


প্রকাশের সময় :১৯ মে, ২০২৩ ৪:৫৮ : পূর্বাহ্ণ

স্টাফ রিপোর্টার:

দুর্নীতির সুনির্দিষ্ট অভিযোগ পেলে যত বড়ই বিচার বিভাগীয় কর্মকর্তা বা কর্মচারী হোক না কেন, তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে এক মুহূর্ত অপেক্ষা করা হবে না বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী।

বৃহস্পতিবার (১৮ মে) সুপ্রিম কোর্টের অডিটোরিয়ামে এক আলোচনা সভায় তিনি এ হুঁশিয়ারি দেন। জাতীয় আইনগত সহায়তা দিবস উপলক্ষে সুপ্রিম কোর্ট লিগ্যাল এইড কমিটির উদ্যোগে এ আলোচনা সভা করা হয়।

সভায় প্রধান বিচারপতি বলেন, দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে মেধাবী জুডিসিয়াল অফিসারদের সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসনে নিয়ে এসেছি। কক্সবাজার থেকে চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটকে নিয়ে এসেছি। তাকে প্রধান করে দুর্নীতি রোধে একটি টাক্সফোর্স করেছি। তাদের নির্দেশনা দিয়েছি সুপ্রিম কোর্টের কোনো সেক্টরে দুর্নীতি চলছে কি না, তা নিয়মিত মনিটরিং করার জন্য।

এসময় প্রধান বিচারপতি কঠোর হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, কারো বিরুদ্ধে দুর্নীতির সুনির্দিষ্ট অভিযোগ যদি আমার কাছে আসে, আমি অন্তত এক মিনিটও তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে অপেক্ষা করবো না। সে যত উচ্চপদস্থ বিচার বিভাগীয় কর্মকর্তা হোক বা সুপ্রিম কোর্টের কর্মচারী হোক। তার বিরুদ্ধে প্রসিডিং শুরু করতে এক মুহূর্ত অপেক্ষা করবো না। কিন্তু যদি কারো বিরুদ্ধে সুনির্দিষ্ট অভিযোগ না আসে তাহলে কিসের ভিত্তিতে আমরা ব্যবস্থা নেবো। যখন কারো দুর্নীতি হাতেনাতে ধরা হয় আমরা সঙ্গে সঙ্গে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েছি।

এসময় আইনজীবীদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসনে যদি দুর্নীতির সঙ্গে কেউ জড়িত হন, কোনো প্রমাণ থেকে থাকলে আমাদের সঙ্গে সঙ্গে জানাবেন। আমরা ব্যবস্থা নিতে পিছপা হবো না।

প্রধান বিচারপতি লিগ্যাল এইডের কার্যক্রমের প্রশংসা করে বলেন, বিচারপ্রার্থীদের বিনামূল্যে আইনি সহায়তা দেওয়ার ক্ষেত্রে সারাদেশের লিগ্যাল এইড অফিসারদের পারফরমেন্স আশাব্যঞ্জক। লিগ্যাল এইডের কার্যক্রমকে যদি জোরদার করা যায় তাহলে মামলাজট ধীরে ধীরে কমে আসবে।

তিনি আইনপেশাকে মানুষের সেবা করার বড় সুযোগ হিসেবে গ্রহণ করে আইনজীবীদের গরিব মানুষকে বিনামূল্যে আইনি সহায়তা দেওয়ার কার্যক্রমে অংশ নেওয়ার আহ্বান জানান।

সুপ্রিম কোর্ট লিগ্যাল এইড কমিটির চেয়ারম্যান বিচারপতি নাঈমা হায়দারের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন আপিল বিভাগের বিচারপতি ওবায়দুল হাসান, বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম, বিচারপতি আবু জাফর সিদ্দিকী, বিচারপতি জাহাঙ্গীর হোসেন সেলিম, অ্যাটর্নি জেনারেল আবু মোহাম্মদ (এএম) আমিন উদ্দিন, সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেল মো. গোলাম রব্বানী, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি মো. মোমতাজ উদ্দিন ফকির, সম্পাদক আব্দুন নূর দুলাল, জ্যেষ্ঠ আইনজীবী মো. খুরশীদ আলম খান, লিগ্যাল এইডের সদস্য সচিব সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল অবন্তী নুরুল প্রমুখ।

অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন সুপ্রিম কোর্টের লিগ্যাল এইড অফিসার (অতিরিক্ত জেলা জজ) ফারাহ্ মামুন। উপস্থিত ছিলেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের রেজিস্টার মুহাম্মদ সাইফুর রহমান, হাইকোর্ট বিভাগের রেজিস্টার মুন্সী মো. মশিয়ার রহমান ও স্পেশাল অফিসার মোহাম্মদ মোয়াজ্জাম হোসাইন।

ট্যাগ :