বাংলাদেশ, শুক্রবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ ৩রা আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

প্রশাসক সুজনের সহযোগী হিসেবে চসিকের ৪১ ওয়ার্ড তদারকি করবেন তিন শীর্ষ কর্মকর্তা


প্রকাশের সময় :13 August, 2020 5:48 : PM

এম.এইচ মুরাদঃ

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের (চসিক) ৪১টি ওয়ার্ডের পরিচ্ছন্নতা, উন্নয়নসহ সার্বিক কার্যক্রম পরিচালনার জন্য কাউন্সিলরদের জায়গায় দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে করপোরেশনের শীর্ষ তিন কর্মকর্তাকে।

বৃহস্পতিবার (১৩ আগস্ট) এক অফিস আদেশে এ দায়িত্ব দেওয়া হয়।

দায়িত্বপ্রাপ্ত তিন কর্মকর্তা হলেন- সচিব আবু শাহেদ চৌধুরী, প্রধান শিক্ষা কর্মকর্তা সুমন বড়ূয়া ও প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা মফিদুল আলম। 

জানা গেছে, ১ নম্বর ওয়ার্ড থেকে ১৪ নম্বর ওয়ার্ডের দায়িত্বে প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা মফিদুল আলম, ১৫ নম্বর থেকে ২৮ নম্বর ওয়ার্ডের দায়িত্বে প্রধান শিক্ষা কর্মকর্তা সুমন বড়ুয়া ও ২৯ থেকে ৪১ নম্বর ওয়ার্ডের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে চসিক সচিব আবু সাহেদ চৌধুরীকে।

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের (চসিক) প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সামসুদ্দোহা সাক্ষরিত এক আদেশে উল্লেখ করা হয়, চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের নির্বাচিত কাউন্সিলররা দায়িত্ব পালন না করা পর্যন্ত ওয়ার্ডের পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম, ভৌত অবকাঠামো উন্নয়নসহ যাবতীয় কর্মকাণ্ড তদারকির জন্য তিন কর্মকর্তাকে দায়িত্ব দেওয়া হলো।

এই সিদ্ধান্তকে সাধুবাদ জানিয়েছেন চট্টগ্রামের আপামর সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে বিশিষ্ট নাগরিকবৃন্দ, রাজনীতিবিদবৃন্দ এবং নীতিনির্ধারকেরা। তারা মনে করছেন চসিক প্রশাসক হিসেবে আলহাজ্ব খোরশেদ আলম সুজন অল্প কয়েকদিনে দৃশ্যমান বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ কাজ সফলভাবে সম্পাদন করেছেন। বিশেষ করে থমকে থাকা যোগাযোগ ব্যবস্থার কাজের অগ্রগতি, দুর্নীতির বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান, বেশ কিছু সুবিধাবাদী কর্মকর্তার বদলীর আদেশ, কর্পোরেশন কতৃক পরিচালিত হাসপাতালগুলোতে সেবার মান উন্নয়নে পদক্ষেপ, চসিকের বেদখল হওয়া জায়গায় অন্যায়ভাবে দখলকারীদের উচ্ছেদ সহ বেশ কিছু জনগুরুত্বপূর্ণ কাজ। যা এর আগে অনেকে দীর্ঘ সময় ধরে সিটি কর্পোরেশনে দায়িত্বে থেকেও সফলভাবে সম্পাদন করতে পারে নাই। তাই তারা প্রশাসক পরিষদের দায়িত্ব অনেকের হাতে না থেকে অল্প কয়েকজনের হাতে থাকলে সিদ্ধান্ত গ্রহণ এবং কাজের অগ্রগতি দ্রুততা এবং সল্প সময়ে হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে চসিক প্রশাসকের একান্ত সচিব আবুল হাশেম একাত্তর বাংলা নিউজকে বলেন, আমরা কদিন আগে সহায়ক পরিষদের বিষয়ে নির্দেশনা চেয়ে মন্ত্রণালয়ে চিঠি দিয়েছিলাম। আজকে (বৃহস্পতিবার) মন্ত্রণালয় থেকে মৌখিকভাবে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে সহায়ক পরিষদ নয়, চসিকের কর্মকর্তাদের মাধ্যমেই কাজ চালিয়ে নিতে। সেকারণে সিইও মহোদয় তিন কর্মকর্তাকে ৪১ ওয়ার্ডের দায়িত্বভার বণ্টনের একটি অফিস আদেশ দিয়েছেন।          

এরআগে ৫ অগাস্ট চসিকে’র পঞ্চম নির্বাচিত পরিষদের মেয়াদ শেষ হয়। এর একদিন আগে প্রশাসক পদে সুজনকে নিয়োগ দেওয়া হয়। ৬ অগাস্ট তিনি দায়িত্ব গ্রহণ করেন। মেয়রের সঙ্গে নির্বাচিত ৪১ জন ওয়ার্ড কাউন্সিলর এবং ১৪টি সংরক্ষিত নারী আসনের প্রার্থীদের মেয়াদও ৫ অগাস্ট শেষ হয়।

এরপর থেকে সদ্য সাবেক ওয়ার্ড কাউন্সিলরদের কোনোরকম দাপ্তরিক কাজ না করতে চসিক থেকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। একারণে ওয়ার্ড কার্যালয়গুলোর দৈনন্দিন কার্যক্রম থমকে আছে।

দায়িত্ব নেওয়ার পর খোরশেদ আলম সুজন শনাক্তকরণ, জন্মনিবন্ধন সনদ দেওয়া ও ওয়ারিশান সার্টিফিকেট দেওয়া দৈনন্দিন কাজ কীভাবে করা হবে তা জানতে মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা চেয়ে চিঠি দেন।

এদিকে ইতিমধ্যে সহায়ক পরিষদের সদস্য হতে অনেকেই জোর তৎপরতা চালিয়েছেন বলে খবর পাওয়া যায়। কোন কোন নেতা নিজ অনুসারীদের লিস্টও প্রস্তুত করেছিলেন বলে জানা গেছে। এমনকি ফেসবুকে অভিনন্দন বার্তাও দিয়েছিলেন তাদের অনুসারীরা। তবে এই আদেশের ফলে তাদের ওই প্রচেষ্টা ভেস্তে গেলো।

ট্যাগ :