বাংলাদেশ, শুক্রবার, ২২ জানুয়ারী ২০২১ ৮ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম

নির্বাচিত হলে মাদকমুক্ত, পরিকল্পিত,পরিচ্ছন্ন ও মডেল ওর্য়াড উপহার দিবো- কাউন্সিলর পদপ্রার্থী রাশেদ চৌধুরী


প্রকাশের সময় :২০ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ৫:০৪ : অপরাহ্ণ

এম.এইচ মুরাদঃ

আসন্ন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ১৫ নং বাগমনিরাম ওর্য়াডে কাউন্সিলর পদপ্রার্থী বিশিষ্ট সমাজসেবক, রাজনীতিবীদ, শিক্ষানুরাগী ও দানবীর জনাব চৌধুরী সায়েফুদ্দীন রাশেদ সিদ্দিকী (রাশেদ চৌধুরী) কাউন্সিলর নির্বাচিত হলে এলাকার বিভিন্ন সমস্যা সমাধানের ব্যপারে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। তারমধ্যে রয়েছে সন্ত্রাস দমন, মাদক নির্মূল, বিশুদ্ধ পানির সংকট নিরসনের পাম্প বসানো, ড্রেনেজ বড় করা, রাস্তা পাকা ও পরিচ্ছন্ন রাখা, খেলাধুলার মাঠ করা, লাইব্রেরী প্রতিষ্ঠা, পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম গতিশীল করা, ফুটওভার ব্রিজ নির্মান,প্রতিবন্ধীদের কাজের সুযোগ করে দেওয়া,ওর্য়াড কার্যালয় অফিস আধুনিকীকরন,রাস্তা প্রশস্ত সহ যানজট মুক্ত সবুজায়ন ওর্য়াড এবং সরকার ও সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের সাথে আলোচনা করে ভূমিদস্যূদের দ্বারা অবৈধভাবে দখলকৃত সরকারি জায়গা উচ্ছেদ জনিত সমস্যা নিরসনের কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহন করবে বলে প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন।

শনিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) একাত্তর বাংলা নিউজকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি এ প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন। তিনি বলেন মিষ্টি কুমড়া প্রতীকে ভোট দিয়ে আমার জয়ের সারথি হবে আমার ১৫নং বাগমনিরাম এলাকার সর্বস্তরের জনসাধারণ।

কাউন্সিলর পদপ্রার্থী রাশেদ চৌধুরী বলেন, বিগত দিনে অত্র এলাকার সন্তান হয়ে এলাকার উন্নয়নে অনেক কাজ করেছি। ১৫ নং বাগমনিরাম ওয়ার্ডের মহামারি করোনা ভাইরাসের কারনে কিছু সংকট তৈরি হয়েছে এবং তা ত্রান সামগ্রী ঘরে ঘরে পৌছে দেওয়ার সময় মানুষের দুঃখ কষ্ট স্বচোক্ষে দেখেছি। মহামারীর কারণে শুরুর দিকে মানুষের মনে যে আতংক তৈরি হয়েছে তা অনেকটা কেটে গেলেও অনিশ্চয়তা এখনো রয়ে গেছে। এর মধ্যে মানুষের মাঝে তৈরি হয়েছে তিনটি মনোভাবের -প্রথমটি হলো ঘরে বসে থাকার আর কোনো সুযোগ নেই, দ্বিতীয়টি হলো কোভিড টেস্টের প্রাধান্য ও আর নেই, তৃতীয়টি হলো যতটুকু সম্ভব হাসপাতাল ও ক্লিনিক এড়িয়ে চলা। সাধারণ মানুষের দুঃখ কষ্ট লাঘবে আমার যা যা করতে হয় আমি আমার সাধ্যের মধ্যে সব কিছু করবো ইনশাআল্লাহ। মাদক ও সন্ত্রাস মুক্ত এলাকা হিসেবে অত্র ওয়ার্ডকে গড়ে তোলা, ময়লা- আবর্জনা পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করে যথাযথ স্থানান্তর ও পরিবেশ সুরক্ষায় প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহন করা, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সাথে এবং সহযোগিতার অত্র ওয়ার্ডের সম্মানিত সকল সর্দার মুরুব্বি ও যুবক ভাইদের সমন্বয়ে আইন শৃঙ্খলা রক্ষায় যথাযথ ও প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহন, অত্র ১৫নং ওয়ার্ডের বেকার যুবকদের তালিকা করে কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টির জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহন করতে হবে। দল যার যার কাউন্সিলর সবার এই নীতিতে ধর্ম বর্ণ নির্বিশেষে সর্বস্তরের সকল মানুষের কল্যাণকর ও অত্র ১৫ নং ওয়ার্ডের সার্বিক উন্নয়নের জন্য অগ্রাধিকার প্রদান করতে হবে।

তারই সাথে, সরকারের প্রতি আমার আকুল আবেদন থাকবে অনেক শিক্ষিত যুবক যুবতীদের কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি করে দিলে অত্র ওয়ার্ডের উন্নয়নের ধারা সৃষ্টি হবে। এক কথায় চট্টলবীর সাবেক মন্ত্রী বিশিষ্ট জনদরদী মরহুম জহুর আহমেদ চৌধুরী ও বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ সাবেক শ্রমমন্ত্রী মরহুম এম.এ মান্নানের স্মৃতি বিজরিত এই অঞ্চলকে সুন্দর ও বসবাসযোগ্য এলাকায় পরিণত করা হবে।

পরিশেষে, চট্টগ্রামের সিংহ পুরুষ বিশিষ্ট রাজনৈতিক নেতা সাবেক মন্ত্রী জনাব আব্দুল্লাহ আল নোমান ও চট্টগ্রামের কৃতি সন্তান বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য সাবেক মন্ত্রী জনাব আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী স্নেহধন্য কর্মী হিসেবে আমার পথচলা। অত্র ওয়ার্ডের উক্ত উন্নয়নমূলক কাজে অংশীদার হতে পারলে আমি আমার জীবনকে সার্থক মনে করবো। আসন্ন চসিক নির্বাচনে আমার প্রতীক মিষ্টি কুমড়া মার্কায় আপনার মূল্যবান ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করে দীর্ঘ দিনের অবহেলিত এলাকাবাসীর সেবা করার সুযোগ দিবেন এটাই আশা রাখছি।

জয়ের বিষয়ে আশাবাদ ব্যক্ত করে তিনি বলেন, আমি এলাকার মাদক, ছিনতাই এবং চাঁদাবাজি বন্ধ করতে সব সময় মাঠে ছিলাম আছি ও ভবিষ্যতে ও থাকবো।অনেক গরীব মানুষের সমস্যা সমাধানে পাশে ছিলাম।করোনাকালীন সময়ে কাজ করতে গিয়ে অসুস্থ হয়েছি কিন্তু এলাকার মানুষের ভালোবাসায় ও দোয়ায় সুস্থ হয়ে আবার সেবায় মনোনিবেশ করেছি। সব কাজে সবসময় ওয়ার্ডের জনগণের সহযোগীতা সমর্থন ও ভালোবাসা পেয়েছি। আশা করছি সবসময়ের মতো আসন্ন‌ চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন‌ নির্বাচনেও সবাই আপনাদের সমর্থন ও মূল্যবান রায় প্রদানের মাধ্যমে আমাকে কাউন্সিলর নির্বাচিত করে আপনাদের পাশে রাখবেন এবং সেবা করার সুযোগ দানে বাধিত করবেন।”

আওলাদ হোসেন মানিক নামের একজন বলেন- রাশেদ ভাই সব সময় পরোপকারী বন্ধু সুলভ আচরণ করে সবার সাথে, একনিষ্ঠ রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ত্ব ও একজন ভালো মানুষ হিসেবে তিনি সবার কাছে পরিচিত এবং তিনি একজন চিরতরুণ মানুষ। দেখবেন তিনি জয়ী হয়ে বাগমনিরাম ওয়ার্ডকে উন্নয়নে পাল্টে দিতে পারবেন। ইনশাআল্লাহ তার হাত ধরেই নান্দনিক ও পরিচ্ছন্ন ওর্য়াড হবে আমাদের ১৫নং বাগমনিরাম ওয়ার্ড।

মহিউদ্দিন নামের একজন বলেন- বাগমনিরাম ওয়ার্ডের জনসাধারণ সব সময় সৎ, ভালো, আদর্শবান ও যোগ্য প্রার্থীর পক্ষে। অতীতে কি হয়েছে তা নিয়ে এখন আর ভাবছি না‌। বর্তমানে রাশেদ ভাই ছাড়া আর বিকল্প ভাবছি না। এবার মিষ্টি কুমড়ার জয় হবেই ইনশাআল্লাহ।

ট্যাগ :