বাংলাদেশ, শুক্রবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ ৩রা আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

চসিক সেবকদের ইউনিফর্মের জন্য ২০ লাখ টাকা অনুদান দিল কাশেম-নুর ফাউন্ডেশন


প্রকাশের সময় :16 August, 2020 2:42 : PM

এম.এইচ মুরাদঃ

কাশেম-নূর ফাউন্ডেশন তাদের সমাজ সেবামূলক কার্যক্রমের ধারাবাহিকতায় এবার এগিয়ে এল চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনে নিয়োজিত সেবকদের ইউনিফর্ম প্রদানে।

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রশাসক খোরশেদ আলম সুজনের কাছে চসিক এর কাজে নিয়োজিত সেবকদের ইউনিফর্মের জন্য (১৬ আগস্ট) রবিবার ২০ লাখ টাকার অনুদানের চেক হস্তান্তর করেছেন কাশেম-নুর ফাউন্ডেশনের কো-চেয়ারম্যান ও চান্দগাঁও আবাসিক এলাকা কল্যাণ সমিতির সভাপতি বিশিষ্ট শিল্পপতি ও দানবীর আলহাজ্ব হাসান মাহমুদ চৌধুরী সিআইপি।

এছাড়া, আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের জন্য দেয়া হয়েছে আরও ২ লাখ টাকা। চট্টগ্রাম সিটি প্রশাসকের কার্যালয়ে এই অনুদানের চেক সমূহ হস্তান্তর করা হয়।

সিটি প্রশাসক খোরশেদ আলম সুজন চেক গ্রহণকালে চলমান করোনা দুর্যোগকালে কাশেম-নুর ফাউন্ডেশনের বিভিন্ন কার্যক্রমের ভূয়সী প্রশংসা করেন। তাছাড়া, সেবকদের পোশাকের জন্য অনুদান নিয়ে এগিয়ে আসায় সন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, এই অনুদান অন্যদেরও অনুপ্রাণিত করবে। তিনি আশা করেন, নগরীর বিত্তশালীরা এভাবে নগর উন্নয়ন কার্যক্রমে অংশ গ্রহণ করবেন। তিনি ব্যক্তিগতভাবে এবং কর্পোরেশনের পক্ষ থেকে হাসান মাহমুদ চৌধুরীকে আন্তরিক ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

এসময় হাসান মাহমুদ চৌধুরী সিআইপি বলেন, সমাজসেবামূলক কাজে কাশেম নুর ফাউন্ডেশনের সহায়তা সব সময় অব্যাহত থাকবে ইনশাআল্লাহ। আমরা চেষ্টা করছি অসহায় ও দুস্থ মানুষের সেবায় নিজেদের নিয়োজিত রাখতে। আমরা মনে করছি সিটি কর্পোরেশনের কাজে নিয়োজিত সেবকদের ইউনিফর্ম তাদের কাজে অনেক গুরুত্ব বহন করে। এই উপলব্ধি থেকে কাশেম-নুর ফাউন্ডেশন সেবকদের জন্য নতুন ইউনিফর্মের ব্যাবস্থা করতে এই অনুদানের চেক হস্তান্তর করলো।

তিনি নবনিযুক্ত চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন প্রশাসক আলহাজ্ব খোরশেদ আলম সুজনকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানান এবং সিটি প্রশাসক হিসেবে একজন প্রকৃত ত্যাগী রাজনীতিবিদ ও অভিজ্ঞতা সম্পন্ন সমাজসেবককে নিয়োগ দেওয়াতে চট্টগ্রামের আপামর জনসাধারণের পক্ষ থেকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন।

প্রশাসক খোরশেদ আলম সুজন আরও বলেন, এখন অনেকেই আমার সাথে ছবি বা ফুল দিতে আসছেন । এটা  আমার প্রতি ভালোবাসার বহি:প্রকাশ। কিন্তু আমি প্রশাসক হিসেবে দায়িত্বে আছি সীমিত সময়ের জন্য। তাই ছবি তুলে বা সংবর্ধনা নিয়ে সময় ক্ষেপন করতে চাই না। যেহেতু এখন ডিজিটাল যুগ তাই আপনাদের যে কোন সমস্যা,অভিযোগ আমাকে আমার হোয়াটস অ্যাপ বা মেসেঞ্জারে জানান। প্রতিদিনের কাজ প্রতিদিন সম্পন্ন করছি।  সমন্বয় করে কাজ করলে নগরীতে সমস্যা থাকার কথা নয়।

এসময় উপস্থিত ছিলেন চান্দগাঁও আবাসিক এলাকা কল্যাণ সমিতির সহ-সভাপতি ইউসুফ সিকদার, আহসানুল করিম, সহ সম্পাদক ফজলে আহমদ, সাংগঠনিক সম্পাদক তৌফিক হোসেন, অর্থ সম্পাদক নুরুল আবছার, তারিকুল ইসলাম, ওসমান গনি, মোঃ আবু জাফর, আবু মোঃ হাসেম, নিজামউদ্দিন, সিদ্দিকুর রহমান, এনামুল হাসান, গোলাম আব্বাস, এম এ মান্নান প্রমূখ।

ট্যাগ :