বাংলাদেশ, বুধবার, ৩ মার্চ ২০২১ ১৮ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

চসিক ২৩নং ওয়ার্ডে রেকর্ড পরিমান ভোট পেয়ে পুনঃরায় কাউন্সিলর নির্বাচিত মোহাম্মদ জাবেদ


প্রকাশের সময় :৩০ জানুয়ারি, ২০২১ ৫:৩৪ : পূর্বাহ্ণ

এম.এইচ মুরাদঃ

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ২৩নং উত্তর পাঠানটুলি ওয়ার্ডে বিপুল পরিমান ভোট পেয়ে পুনঃরায় কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়ে অনন্য নজির গড়লেন মোহাম্মদ জাবেদ। তার নির্বাচনি প্রতীক ছিলো মিষ্টি কুমড়া।

যেখানে এবারের চসিক নির্বাচনে ভোট পড়েছে গড়ে শতকরা ২৩ ভাগেরও কম সেখানে এই মডেল ওয়ার্ডটিতে ভোট পড়েছে শতকরা ৮২ ভাগেরও বেশি। এই ওয়ার্ডে কোন নির্বাচনি সহিংসতা বিহীন, গণতান্ত্রিক, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে বলে এই রেকর্ড পরিমান ভোটার উপস্থিতি এবং ভোট প্রদান করেছে বলে ধারণা করছেন চট্টগ্রামের বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ ও বিশেষজ্ঞরা।

২৭শে জানুয়ারী চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ইভিএম মেশিনের সাহায্যে ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হয়। সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত সুশৃঙ্খলভাবে ভোট গ্রহণ শেষে ২৩নং উত্তর পাঠানটুলি ওয়ার্ডের ১০টি কেন্দ্রের ফলাফল গণনা করে রির্টানিং কর্মকর্তা মোহাম্মদ হাসানুজ্জামান ফলাফল ঘোষনা করেন। এতে রেকর্ড পরিমান ভোটে কাউন্সিলর নির্বাচিত হয় মোহাম্মদ জাবেদ।

এই ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে মিষ্টি কুমড়া প্রতীক নিয়ে আওয়ামীলিগ মনোনীত কাউন্সিলর প্রার্থী মোহাম্মদ জাবেদ ১৮৪২৩ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন, অপরদিকে তার নিকটতম প্রতিধন্ধী বিএনপি মনোনীত কাউন্সিলর প্রার্থী মোঃ মহসিন ঘুড়ি প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ১১১৬ ভোট। বাতিল হওয়া ভোটের সংখ্যা ৫১৬। মোট ভোট পড়েছে ২০০৫৫টি। এই ওয়ার্ডে মোট ভোটার সংখ্যা ২৩৬৮৮। এই ওয়ার্ডে ভোট পড়েছে শতকরা ৮২ ভাগেরও বেশি। সেই হিসাবে এবারের চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিজয়ী প্রার্থীদের মধ্যে মোহাম্মদ জাবেদ রেকর্ড পরিমান ভোট পেয়ে এবং সর্বোচ্চ ভোটের ব্যবধানে কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন।

ছবিঃ কাউন্সিলর মোহাম্মদ জাবেদ

বলা যায়, এই ওয়ার্ডে একটি অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেও জামানত হারালো বিএনপির কাউন্সিলর প্রার্থী। এই বিষয়টাকে অনেকে ভোটারদের ইতিবাচক মনোভাবের প্রতিফলন হিসেবে দেখছেন। কাউন্সিলর হিসেবে দায়িত্ব পালনের সময় দৃশ্যমান উন্নয়ন কর্মকাণ্ড, করোনাকালে রাতদিন নিজেকে মানুষের সেবায় নিয়োজিত রেখে বিভিন্ন সাহায্য সহযোগিতা করে এবং নিজের ব্যক্তিগত ক্লিন ইমেজের জন্য রেকর্ড পরিমান ভোটে এবং সবচেয়ে বেশী ভোটের ব্যবধানে মোহাম্মদ জাবেদের জয় হয়েছে বলে মনে করছেন এলাকাবাসী।

এই বিষয়ে জানতে চাইলে কাউন্সিলর মোহাম্মদ জাবেদ বলেন,’জনগনের জন্য কাজ করলে এবং সুষ্ঠু নির্বাচনের মাধ্যেমে মূল্যায়নের সুযোগ দিলে,জনগন সেটা মনে রাখে। নিরপেক্ষ নির্বাচনের মাধ্যেমে বিপূল ভোটে জয়লাভ করা তারই প্রমাণ,এ বিজয় গৌরবের, এ বিজয় অত্র ওয়ার্ডের প্রতিটি জনগণের। যেখানে দলমত নির্বিশেষে সবাই দলীয় মোহাম্মদ জাবেদের চাইতে ব্যাক্তি জাবেদকে ভোট দিয়েছেন। তাই আমি সবার ভালোবাসার প্রতি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। আপনারা আবারও আমাকে ঋণী করলেন। নির্বাচনি ওয়াদা মোতাবেক যা যা বলেছিলাম আপনাদের সাথে নিয়ে সব কিছু সম্পাদন করে এই ওয়ার্ডটিকে একটি সত্যিকারের মডেল ওয়ার্ডে পরিণত করবো ইনশাআল্লাহ।’

ট্যাগ :