বাংলাদেশ, বৃহস্পতিবার, ২২ এপ্রিল ২০২১ ৯ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

চট্টগ্রাম-৮ সংসদীয় আসনের উপ নির্বাচন : মহানগর আ.লীগের সম্ভাব্য ৩ প্রার্থীর নাম পাঠাতে সিদ্ধান্ত


প্রকাশের সময় :৫ ডিসেম্বর, ২০১৯ ৫:৪৬ : অপরাহ্ণ

নিউজ-ডেস্ক:

চট্টগ্রাম-৮ আসনের উপ নির্বাচনে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে সম্ভাব্য তিনজন প্রার্থীর নাম পাঠানো হবে। গতকাল নগর আওয়ামী লীগের নির্বাহী কমিটির সভায় এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। তারা হলেন নগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক রেজাউল করিম চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক নোমান আল মাহমুদ এবং সাবেক কমিশনার আবু তাহের।

সভা সূত্রে জানা যায়়, নির্বাহী কমিটির সভায় অন্যান্য আলোচনার এক পর্যায়ে চট্টগ্রাম-৮ আসনের উপ-নির্বাচনে প্রার্থিতার বিষয়টি উঠে আসে। সভায় নগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক রেজাউল করিম চৌধুরী নিজেকে সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা করে দলের সহযোগিতা কামনা করেন।

ওই আসনের পাঁচটি ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের তিনি সমর্থন পেয়েছেন বলেও সভায় তুলে ধরেন। এরপর নগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নোমান আল মাহমুদ উপ-নির্বাচনে দলের প্রার্থী হতে আগ্রহ প্রকাশ করেন।

তিনিও তার রাজনৈতিক জীবনের অভিজ্ঞতার কথা তুলে ধরে বলেন, দল থেকে মনোনয়ন পেলে তিনি নির্বাচন করবেন। এরপর সাবেক কমিশনার আবু তাহেরও নিজের প্রার্থীতার কথা ঘোষণা করে নগর আওয়ামী লীগের সহযোগিতা কামনা করেন। সভায় নির্বাহী কমিটির ৪৭ জন সদস্য উপস্থিত ছিলেন। যেহেতু একাধিক প্রার্থী উপ-নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন তাই কমিটি তিনজনের নাম কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের কাছে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেয়।

সভায় নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সিটি মেয়র আ.জ.ম নাছির উদ্দীন বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মিশন-ভিশনকে বাস্তবায়ন করতেই নগর আওয়ামী লীগ ঐক্য ও সমন্বয়ের ভিত্তিতে এগিয়ে যাচ্ছে। এই ভিত্তিকে রক্ষা করতে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগ ঐক্যবদ্ধ।

সভাপতির বক্তব্যে সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী বলেন, দলের দুঃসময়ে যাঁরা রাজপথে থাকেন তাদের নিয়েই মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক ভিত্তি গড়ে তোলা হবে। সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আসন্ন কেন্দ্রীয় কাউন্সিলে অংশগ্রহণ, ১৪ ডিসেম্বর শহীদ দিবস পালন উপলক্ষে সকাল ১০টায় টিআইসি চত্বরে আলোচনা সভা ১৫ ডিসেম্বর বেলা ১১টায় ইন্টারন্যাশনাল কমিউনিটি সেন্টারে প্রয়াত জননেতা চট্টলবীর মরহুম এ.বি.এম মহিউদ্দিন চৌধুরীর দ্বিতীয় মৃত্যুবার্ষিকী পালনোপলক্ষে স্মরণানুষ্ঠান এবং ঐদিন রাত ১১টায় দলের কার্যালয়ে সমাবেশ এবং কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পমাল্য অর্পণ। বিজয় দিবসে প্রতিটি ওয়ার্ডে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ সম্প্রচারসহ আলোচনা সভা করার নির্দেশনা গ্রহণ করে এবং ১৭ ডিসেম্বর মহানগর আওয়ামী লীগের উদ্যোগে বিজয় দিবসের আলোচনা সভা করার সিদ্ধান্ত হয়।

সভায় নগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি প্রবীন আওয়ামী লীগ নেতা নঈম উদ্দিন চৌধুরীকে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় পরিষদের সদস্য হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করায় প্রধানমন্ত্রী ও দলীয় সভানেত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করা হয়। সভায় উপস্থিত ছিলেন নগর আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি নঈম উদ্দিন চৌধুরী, এডভোকেট সুনীল কুমার সরকার, এডভোকেট ইব্রাহিম হোসেন চৌধুরী বাবুল, খোরশেদ আলম সুজন, জহিরুল আলম দোভাষ, আলতাফ হোসেন চৌধুরী বাচ্চু, সম্পাদকমন্ডলীর সদস্য রেজাউল করিম চৌধুরী, বদিউল আলম, এম এ রশিদ, নোমান আল মাহমুদ, শফিক আদনান, চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী, শফিকুল ইসলাম ফারুক, হাসান মাহমুদ শমসের, এডভোকেট শেখ ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী, চন্দন ধর, মশিউর রহমান চৌধুরী, আহমেদুর রহমান সিদ্দিকী, মোহাম্মদ হোসেন, জহুর আহমেদ, মানস রক্ষিত, দেবাশীষ গুহ বুলবুল, মাহবুবুল হক মিয়া, আবদুল আহাদ, দিদারুল আলম চৌধুরী, মোহাম্মদ আবু তাহের, ডা. ফয়সাল ইকবাল চৌধুরী, নির্বাহী সদস্য এম এ জাফর, মো. ইয়াকুব, নুরুল আবছার মিয়া, মো. ইউসুফ সর্দার, পেয়ার মোহাম্মদ, দোস্ত মোহাম্মদ, নুরুল আলম, গাজী শফিউল আজিম, কামরুল ইসলাম বুলু, বখতেয়ার উদ্দিন খান, গোলাম মো. চৌধুরী, সাইফুদ্দিন খালেদ বাহার, আহমেদ ইলিয়াস, বিজয় কিষাণ চৌধুরী, আবদুল লতিফ টিপু, রোটারিয়ান মো. ইলিয়াস, মো. জাবেদ, বেলাল আহমেদ, মোরশেদ আকতার চৌধুরী প্রমুখ।

ট্যাগ :