বাংলাদেশ, সোমবার, ৩ অক্টোবর ২০২২ ১৮ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

আজারবাইজান-আর্মেনিয়া সংঘাতে মধ্যস্থতা করতে চায় রাশিয়া


প্রকাশের সময় :১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ২:৪৪ : অপরাহ্ণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

ইউক্রেনে যুদ্ধ চালিয়ে গেলেও রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বলেছেন, আজারবাইজান ও আর্মেনিয়ার মধ্যে সাম্প্রতিক সীমান্ত সংঘাতে মধ্যস্থতা করার মতো সামর্থ্য রয়েছে রাশিয়ার। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স এখবর জানিয়েছে।

মঙ্গলবার সীমান্তে আজারবাইজান ও আর্মেনিয়ার সেনারা সংঘাতে জড়িয়ে পড়ে। বৃহস্পতিবার আন্তর্জাতিক মধ্যস্থতায় সংঘাতের আপাত সমাধান হয়েছে। এখন পর্যন্ত দুই দেশের দুই শতাধিক নিহতের খবর পাওয়া গেছে। ২০২০ সালে নাগোরনো-কারাবাখ নিয়ে সংঘর্ষের পর এটিই আজেরি ও আর্মেনীয়দের মধ্যকার ভয়াবহ সংঘাত।

আজারবাইজানের প্রেসিডেন্ট ইলহাম আলিয়েভ শুক্রবার পুতিনকে বলেছেন, সংঘাত স্থিতিশীল হয়েছে। মঙ্গলবারের সংঘাতের জন্য আজারবাইজান ও আর্মেনিয়া একে অপরকে দোষারোপ করে আসছে। ২০২০ সালের সংঘাতে কয়েক হাজার নিহত হয়েছিল।

রাশিয়ার সামরিক মিত্র আর্মেনিয়া। আজারবাইজানের সঙ্গেও মস্কোর বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক রয়েছে।

উজবেকিস্তানে আঞ্চলিক সম্মেলনে পুতিন সাংবাদিকদের বলেছেন, রাশিয়ার প্রভাবে সংঘাত নিরসন হয়েছে। আমি আশা করি এমনটি চলবে।

ইউক্রেনে যুদ্ধে লিপ্ত থাকলেও আজারবাইজান ও আর্মেনিয়ার সংঘাত নিরসনে মধ্যস্থতা করার মতো সামর্থ্য রয়েছে কিনা জানতে চাইলে পুতিন বলেন, দেখতেই পাচ্ছেন যথেষ্ট সামর্থ রয়েছে।

তবে রাশিয়ার মধ্যস্থতায় অসন্তুষ্টি জানিয়েছেন আর্মেনিয়ার এক সিনিয়র কর্মকর্তা। বিশেষ করে তাদের পক্ষ থেকে রাশিয়ার নেতৃত্বাধীন সামরিক জোটের সাড়া তাদের মনোঃপুত হয়নি।

মস্কো নেতৃত্বাধীন কালেক্টিভ সিকিউরিটি ট্রিটি অর্গানাইজেশনের হস্তক্ষেপ চেয়েছিল আর্মেনিয়া। দেশটির স্পিকার আলেন সিমোনিয়ান বলেছেন, অবশ্যই আমরা অসন্তুষ্ট। আমাদের যে প্রত্যাশা ছিল তা পূরণ হয়নি।

শুক্রবার আর্মেনিয়ার প্রধানমন্ত্রী নিকোল পাশিনিয়ানের সঙ্গে ফোনালাপ করেছেন পুতিন। ফরাসি প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাক্রোঁ ও যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিনকেনের সঙ্গেও কথা বলেছেন আর্মেনীয় প্রধানমন্ত্রী। এই সপ্তাহে আর্মেনিয়া সফর করবেন মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি।

ট্যাগ :