বাংলাদেশ, মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০ ৭ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

আমার যেইখানে রাইত, সেইখানেই কাইত: তসলিমা নাসরিন


প্রকাশের সময় :20 January, 2020 1:06 : PM

শাইখ মহিউদ্দীন আহমেদ:

ভা’রতে ‘নাগরিকত্ব আইন সংশোধন’ আ’ন্দোলন নিয়ে চলছে তুমুল উত্তে’জনা। ভা’রতে বাস করা অ’বৈধ নাগরিকদের সে দেশ থেকে তাড়িয়ে দেয়া হবে বলে দেশটির ক্ষমতাসীন দলের নেতারা বারবার হুশিয়ারি দিয়ে যাচ্ছেন। বাংলাদেশ থেকে বিতাড়িত হওয়া আ’লোচিত ও সমালোচিত লেখিকা তসলিমা নাসরিন রেসিডেন্স পারমিট নিয়ে ভা’রতে বাস করছেন বেশ কয়েক বছর হলো। এবার এ বিষয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে নিজের অবস্থান পরিষ্কার করেছেন। আজ সোমবার (২০ জানুয়ারি) নিজের ভেরিফাইড ফেসবুক একাউন্ট থেকে তসলিমা এই পোস্টটি দেন। তসলিমা নাসরিনের স্ট্যাটাসটি বিডি২৪লাইভের পাঠকদের জন্য হুবহু তুলে ধ’রা হলো:

‘বাজারে বলাবলি হইতাছে আমি নাকি ভা’রতের নাগরিকত্ব পাইয়াই যাইতাছি। অর্থ মন্ত্রি বলছেন আমি পাইয়া গেছি নাগরিকত্ব। যদিও ভুল কই’রা বলছেন। স্লিপ অফ টাং। বাট কথা হইলো কেমনে আমি পাবো নাগরিকত্ব। পাওয়ার রাস্তা তো দেখতাছি না। দেখতাছি না, কারণ আমি তো এপ্লাইই করি নাই নাগরিকত্বের জন্য। তাইলে কেম্নে কী’! বছর বছর আমা’র রেসিডেন্স পারমিট বাড়াইলেই আমি খুশি। দুইদিনের দুনিয়ায় আমাদের দুইদিনের বসবাস। কী’ দরকার নাগরিক হওয়ার। নাগরিক হইলে সুবিধা কী’ শুনি! আমি তো বাংলাদেশের নাগরিক, আমা’রে দেশ থেইক্যা বাইর কই’রা দেয় নাই? আমি তো সুইডেনের নাগরিক, ওই দেশে থাকতেই তো আমি পছন্দ করি না। তাইলে?

রেসিডেন্স পারমিট থাকলেও তো ইচ্ছা না হইলে রিসাইড করতে দেয় না সরকার বাহাদুর। আমা’র তো ছিল রেসিডেন্স পারমিট। ভা’রতের যে কোনও স্থানে বাস করার অনুমতি ছিল। আমা’রে লাত্থাইয়া ভাগায় নাই কলিকাত্তা থেইকা? ভাগাইছে। ইন্ডিয়া থেইকাও ভাগাইছে। শুধু ভা’রত থেইকা ভাগাইতে পারে নাই। কারণ ওইখানে আমা’র মন পইড়া ছিল। কী’ হইব নাগরকত্ব দিয়া? কিছুই না। আইজ আছি, কাইল নাই। আমা’র হইল যেইখানে রাইত, সেইখানে কাইত। দুনিয়াডায় এক যাযাবর মু’সাফির আমি। আমা’র মন টাই আমা’র ঘর বাড়ি। আর কী’ লাগে এক জীবনে?’

ট্যাগ :