বাংলাদেশ, বুধবার, ৩ মার্চ ২০২১ ১৮ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

বিমানের সেরা ও আরামদায়ক আসন কোনটি?


প্রকাশের সময় :১৫ ডিসেম্বর, ২০১৯ ২:১৮ : পূর্বাহ্ণ

এন.এইচ নিরব:

উড়োজাহাজ সংস্থাগুলো যাত্রীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত মুনাফা অর্জনের জন্য ক্রমেই সিট সংকোচন করে ফেলছে। এরই অংশ হিসেবে উড়োজাহাজের সিটের লেগরুমসহ আরামদায়ক বিষয়গুলো ধীরে ধীরে কমে আসছে। এমন প্রেক্ষাপটে উড়োজাহাজে ওঠার আগে ফ্লাইটের সেরা আসন কোনটি, তা জানা প্রয়োজনীয় হয়ে পড়েছে।

ফ্লাইটের সেরা আসন কোনটি, তা অবশ্যই নির্ভর করবে ‘আপনি কোন আসনটি বেছে নেবেন তার ওপর’। ভালো আসন অবশ্য ভ্রমণকারীর উচ্চতা, প্রস্থ এবং ব্যক্তিগত আকাঙ্ক্ষার ওপর নির্ভর করে।

ফ্লাইটে বিভিন্ন ধরণের ইকোনোমি শ্রেণির আসন থাকে যাতে সাধারণ আসনের চেয়ে বেশি স্থান থাকে। তবে অনেকগুলো এয়ারলাইন্স এখন অতিরিক্ত-লেগরুম অঞ্চল বিক্রি করছে, বা ঘন ঘন ভ্রমণকারীদের দিয়ে দিচ্ছেন। তবে ভালো আসনের জন্য খুব কম লোকই অতিরিক্ত খরচ করতে প্রস্তুত থাকে।

সর্বাধিক লেগরুম বা স্থান কোন আসনে রয়েছে?
বেশিরভাগ প্লেনের সর্বাধিক লেগরুম সিট সাধারণত জরুরী বহির্গমনের সারিগুলোতে থাকে। তবে বোয়িং৭৩৭ বা এয়ারবাস এ-৩২০ এর মতো ছোট উড়োজাহাজগুলোতে সাধারণত মাঝখান থেকেই লেগরুমসহ সিট পাওয়া যায়।

তবে মনে রাখতে হবে, যদি কারো কোনও গতি সংক্রান্ত বিধিনিষেধ থাকে, ইংরেজি না বলতে পারে অথবা বাচ্চা সঙ্গে থাকায় বাড়তি সিটবেল্টের প্রয়োজন থাকে তাহলে আপনাকে জরুরি বহির্গমন সারিটিতে বসতে দেওয়া হবে না। এছাড়া প্লেন উড্ডয়ন এবং অবতরণের জন্য কাছে থাকা ব্যাগটি আপনার সামনে সিটের নীচে রাখতে দেয়া হবে না।

ভালো সিটের জন্য দ্বিতীয় বিকল্প হচ্ছে বাল্কহেড, কেবিনের ঠিক সামনের প্রাচীরের পিছনের সিট। এই সিটের বড় সুবিধা হলো কেউ আপনাকে বিরক্ত করতে পারবে না। তবে বেশিরভাগ প্লেনগুলোতে পেছনের প্রাচীরটি কিছুটা সীমাবদ্ধ থাকায় একটি নেতিবাচক দিক রয়েছে। পাশের আসনে বাচ্চাকে খুঁজে পাওয়ার সম্ভাবনাও রয়েছে অনেক বেশি।

কিছু নতুন প্লেনে, বিশেষত ছোট বিমানগুলো; যেমন- এয়ারবাস এ-৩২০ বা বোয়িং ৭৩৭ প্লেনে প্রথম বা ব্যবসায়িক শ্রেণীর সিট এবং সাধারণ আসনের মধ্যে দেয়াল ইন্সটল করছে না, তাই সামনের সারির সিটগুলো বড় হয়ে থাকে। এর ফলে লেগরুমের জন্য অতিরিক্ত পরিমাণে জায়গা পাওয়া যায়। তবে আসনগুলোর সঙ্গে আর্মরেস্ট-টেবিল থাকায় সিটগুলো সংকীর্ণ হয়ে যায়।

ট্যাগ :