বাংলাদেশ, শনিবার, ১৩ আগস্ট ২০২২ ২৯শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

কাবা ঘরে নতুন গিলাফ পরানোর সব প্রস্তুতি সম্পন্ন


প্রকাশের সময় :৫ জুলাই, ২০২২ ২:১৩ : অপরাহ্ণ

স্টাফ রিপোর্টারঃ

রীতি অনুযায়ী প্রতি বছরের মতো এবারও পবিত্র কাবা ঘরের গায়ে স্বর্ণখচিত নতুন গিলাফ (কিসওয়া) পরানো হবে। এরই মধ্যে এ বছরের হজ উপলক্ষে কাবা ঘরকে গিলাফ দিয়ে ঢেকে দেওয়ার সব প্রস্তুতি চূড়ান্ত হয়েছে।

দুই পবিত্র মসজিদ-বিষয়ক জেনারেল প্রেসিডেন্সির সভাপতি ড. আবদুল রহমান আল-সুদাইস আজ মঙ্গলবার এ ঘোষণা দিয়েছেন। খবর আরব নিউজের।

আল-সুদাইস জানান, এ বছর কাবার গিলাফটি বাদশাহ আব্দুল আজিজ কমপ্লেক্সে তৈরি করা হয়েছে। সর্বোচ্চ মান বজায় রেখে এর সেলাই কার্য সম্পন্ন হয়েছে। এক বছরের কঠোর পরিশ্রমের পর পবিত্র কাবার গিলাফ এখন প্রস্তুত।

প্রতি বছর ৯ জিলহজ হজের দিন কাবা ঘরের পুরোনো গিলাফ পরিবর্তন করে নতুন গিলাফ পরানোর রেওয়াজ রয়েছে। কাবাকে আবৃত করে রাখা কাপড়টিকে বলে কিসওয়া বা গিলাফ। হাজিরা আরাফাতের ময়দান থেকে ফিরে এসে নতুন গিলাফ দেখে রোমাঞ্চিত হন। তবে পুরাতন গিলাফ কেটে বিভিন্ন মুসলিম দেশের সরকারপ্রধানদের উপহার দেওয়া হয়।

গিলাফ পরিবর্তনের কাজে মসজিদুল হারামের দায়িত্বপ্রাপ্ত তত্ত্বাবধায়ক নেতৃত্ব দেন। এ সময় সৌদি বাদশার প্রতিনিধিসহ দেশটির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত থাকেন।

কাবা শরিফের দরজা ও বাইরের গিলাফ দুটোই মজবুত রেশমি কাপড় দিয়ে তৈরি করা হয়। গিলাফের মোট পাঁচটি টুকরো বানানো হয়। চারটি টুকরো চারদিকে এবং পঞ্চম টুকরোটি দরজায় লাগানো হয়। টুকরোগুলো পরস্পর সেলাইযুক্ত।

কাবা শরিফের গিলাফের প্রতিটি কাপড়ের জন্য প্রয়োজন হয় ৬৭০ কেজি রেশম, ১৫০ কেজি সোনা ও রুপার চিকন তার। ৪৭ থান সিল্কের কাপড় দিয়ে তৈরি করা হয় এই গিলাফ। এর মোট আয়তন ৬৫৮ বর্গমিটার। প্রতিটি থান এক মিটার লম্বা, ৯৫ সেন্টিমিটার চওড়া। এগুলো পরস্পরের সঙ্গে সেলাই করা।

ট্যাগ :